জিসিএর আঞ্চলিক কার্যালয় উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

Digiqole ad


জাতীয় : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ রাজধানীর আগারগাঁওয়ে গ্লোবাল সেন্টার অন অ্যাডাপ্টেশন (জিসিএ)’র আঞ্চলিক কার্যালয়ের উদ্বোধন করেছেন।
জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুন এবং নেদারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুট অনুষ্ঠানে অনলাইনে অংশ গ্রহণ করেন।
রাজধানীর আগারগাঁওয়ের পরিবেশ অধিদপ্তরে অবস্থিত আঞ্চলিক কার্যালয়টি জলবায়ু পরিবর্তন জনিত জরুরি পরিস্থিতি মোকাবেলায় কার্যকর অভিযোজন সমস্যা সমাধানে দক্ষিণ এশিয়ার সরকার, সিটি মেয়র, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ, বিনিয়োগকারী, স্থানীয় জনগোষ্ঠী এবং সুশীল সমাজের সঙ্গে কাজ করবে।
হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর প্রতি জিসিএ’র আঞ্চলিক কার্যালয়টিকে উৎসর্গ করা হয়।
গ্লোবাল ক্লাইমেট রিস্ক ইনডেক্স ২০১৯ অনুসারে, দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলো জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবের জন্য বিশ্বে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ।
ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরাম ও ভালনারেবল গ্রুপ অব টুয়েন্টি (ভি ২০) ফাইন্যান্স মিনিস্টার্সের সভাপতি বাংলাদেশ বিশ্বেও প্রথম দেশ হিসেবে একটি জাতীয় অভিযোজন পরিকল্পনা তৈরি করেছে।
জিসিএ বাংলাদেশ অফিস মূলত দক্ষিণ এশিয়ায় অভিযোজনের ক্ষেত্রসমুহ শক্তিশালী করা এবং সমগ্র অঞ্চলের জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকিসমুহ দূর করতে মাঠ পর্যায়ের কার্যক্রম জোরদার করতে সহায়তা করবে।
বাংলাদেশের সভাপতিত্বকালীন সময়ে এটি জলবায়ু ভিত্তিক দু’টি গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক সংস্থা সিভিএফ এবং ভি ২০ এর সচিবালয় হিসেবেও কাজ করবে। এটি ডেল্টা জোটের সচিবালয় ও সুনীল অর্থনীতি নিয়েও কাজ করবে।
অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, গ্লোবাল সেন্টার অন অ্যাডাপ্টেশনের চেয়ারম্যান ও জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুন, নেদারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুট, গ্লোবাল সেন্টার অন অ্যাডাপটেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্যাট্টিক ভার্কুইজেন বক্তব্য রাখেন।
এতে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল, পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও জিসিএ বোর্ডের সদস্য একে আব্দুল মোমেন এবং পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, ভারতের পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়, ভুটানের পররাষ্ট্র মন্ত্রী লিনোপ টেন্ডি দরজি, মালদ্বীপের পরিবেশ মন্ত্রী হোসেন রশিদ হাসান, নেপালের বন ও পরিবেশ মন্ত্রী শক্তি বাহাদুর বাসনেট, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সহকারী মালিক আমিন আসলাম বক্তব্য রাখেন।
এরপর জিসিএ ভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ড. এ. কে আব্দুল মোমেন, মো. শাহাব উদ্দিন ব্রিফ করেন। এ সময় বান কি মুন ও বক্তব্য রাখেন।
সারা বিশ্বের তরুণদের শিক্ষার সুযোগ প্রদানের মাধ্যমে তাদের ভূমিকাকে অভিযোজন এজেন্ডায় যুক্ত করা, ক্ষমতায়ন এবং সম্প্রসারণের জন্য বৈশ্বিক প্রধান প্লাটফর্ম জিসিএ’র ইয়ুথ অ্যাডাপ্টেশন নেটওয়ার্ক নিয়ে আলোচনার জন্য ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের অ্যাম্বাসেডর সায়মা ওয়াজেদ হোসেন ভার্চুয়াল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

Digiqole ad

Related post